সোনাইমুড়ীতে গৃহবধূর গলাকাটা লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলার দেওটি ইউনিয়ন থেকে তাজ নাহার বেগম (৫৫) নামে এক গৃহবধূর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনায় মা’কে হত্যার অভিযোগ এনে তার বাবাকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছে নিহতের ছেলে।

মঙ্গলবার সকালে দেওটি গ্রাম থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত তাজ নাহার ওই গ্রামের পি.ডি.বি. এর অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারী আবু তাহেরের স্ত্রী।

নিহতের ছেলে ও মামলার বাদী রুবেল হোসেন জানান কিছুদিন পূর্বে তারা একটি জমি কেনে। এ নিয়ে তার বাবা আবু তাহের তার মা তাজনেহার বেগম ও তাকে বিভিন্ন প্রকার হুমকি দিয়েছিলেন। গত তিন দিন আগে তাজনেহার বেগমের সঙ্গে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে আবু তাহের তাকে হত্যার হুমকি দেন। সোমবার রাতে খাবার খেয়ে পরিবারের লোকজন সবাই ঘুমিয়ে পড়ে। গভীর রাতে কোনো এক সময়ে আবু তাহের ঘুমের মধ্যে তাজনেহার বেগমকে ধারালো বটি দিয়ে গলা কেটে হত্যা করে ঘরের দরজা খোলা রেখে পালিয়ে যায়।

সোনাইমুড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গিয়াস উদ্দিন জানান, খবর পেয়ে গৃহবধূর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। তাজ নাহার নিহতের পর থেকে তার স্বামী আবু তাহের পলাতক রয়েছে। সন্দেহ করা হচ্ছে স্বামী আবু তাহের তার স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা করে পালিয়ে গেছে।

তিরি আরও বলেন, ঘটনায় নিহতের ছেলে রুবেল বাদী হয়ে তার পিতা আবু তাহেরকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। আসামীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

শেয়ার করুন