সাধারণ ছুটি ৬ মে পর্যন্ত বাড়ানোর সিদ্ধান্ত

প্রকাশিত

মুক্তমন ডেস্ক : করোনাভাইরাস পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় চতুর্থ দফায় সাধারণ ছুটির মেয়াদ আগামী ৬ মে পর্যন্ত বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এর মধ্যে সাপ্তাহিক ও পূর্বনির্ধারিত সরকারি ছুটিও রয়েছে।

আজ বুধবার বিকেলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেন, ‘সাধারণ ছুটি ৫ মে পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। ৬ মে বৌদ্ধপূর্ণিমার জন্য সরকারি ছুটি রয়েছে।’

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, ‘করোনার প্রকোপ বৃদ্ধির কারণে সাধারণ ছুটির মেয়াদও বাড়ানো হচ্ছে। তবে এ ক্ষেত্রে কিছু বিধিনিষেধ ও নির্দেশনা থাকবে প্রজ্ঞাপনে।’

এর আগে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে প্রথম দফায় গত ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সরকারি ও বেসরকারি অফিসে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করে সরকার। দ্বিতীয় দফায় তা ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত এবং তৃতীয় দফায় ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়।

এদিকে, সাধারণ ছুটির মধ্যেই সীমিত আকারে খোলা রয়েছে ব্যাংকগুলো। পাশাপাশি, নিত্যপণ্য ও ওষুধসহ জরুরি সেবাগুলো খোলা রয়েছে।

এদিকে করোনাভাইরাসজনিত কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরো ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে এ রোগে আক্রান্ত হয়ে ১২০ জনের মৃত্যু হলো। এ ছাড়া নতুন করে আরো ৩৯০ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে মোট তিন হাজার ৭৭২ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে।

আজ বুধবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর আয়োজিত নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে অধিদপ্তরটির অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা এসব তথ্য জানান। তিনি আরো জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ১০ জনের মধ্যে পুরুষ সাতজন ও নারী তিনজন। এ ছাড়া সাতজন ঢাকায় মারা গেছেন।

এদিকে করোনাভাইরাসে বিশ্বে সাড়ে ২৫ লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। সেইসঙ্গে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক লাখ ৭৭ হাজার ৬৪০। প্রাণঘাতী ভাইরাসটি গত ২৪ ঘণ্টায় সাত হাজারের বেশি মানুষের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের সর্বশেষ পরিসংখ্যান জানার অন্যতম ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, বুধবার সকাল পর্যন্ত কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়েছেন বিশ্বের ২৫ লাখ ৫৬ হাজার ৯০৯ জন। এদের মধ্যে বর্তমানে ১৬ লাখ ৬৮ হাজার ৮৭৫ জন চিকিৎসাধীন এবং ৫৭ হাজার ২৪৫ জন (৩ শতাংশ) আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে।

শেয়ার করুন