সব পথ মিলেছে শহীদ মিনারে

প্রকাশিত

মুক্তমন রিপোর্ট, ঢাকা: ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি… আমি কি ভুলিতে পারি…’ গানে গানে শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় ভাষা শহীদদের স্মরণ করছে জাতি। জনসাধার‌ণের জন্য উন্মুক্ত ক‌রে দেয়ার পর সকালে শ‌হীদ মিনার থে‌কে পলা‌শীর মোড় পর্যন্ত মানুষের ঢল নেমেছে। যেন ‌রাজধানীর সব সড়ক এসে মিলেছে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। একুশের প্রথম প্রহর রাত ১২টা এক মিনিটে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের বেদিতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এরপরই পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাঁরা কিছু সময় নীরবে দাঁড়িয়ে ভাষাশহীদদের প্রতি সম্মান জানান। এরপর প্রধানমন্ত্রী মন্ত্রিপরিষদের সদস্যদের নিয়ে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। প্রধানমন্ত্রীর পর জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী ও ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বি মিয়া পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এছাড়া তিন বাহিনীর প্রধান, পুলিশ প্রধান, কূটনীতিকদের পর ফুল দেয় ক্ষমতাসীন ১৪ দল। সেক্টর কমান্ডার্স ফোরাম, অ‌্যাটর্নি জেনারেলও ফুল দেন প্রথম প্রহরে। কড়া নিরাপত্তার মধ‌্য দিয়ে রাষ্ট্রীয় গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের শ্রদ্ধা নিবেদনের পর শহীদ মিনার সবার জন্য খুলে দেওয়া হয়। এরপর জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করা হয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার। মানুষ দিনভর শ্রদ্ধার সা‌থে স্মরণ করবে বাংলা ভাষার জন্য আত্মত্যাগকারী বীরদের। বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক দল, সংগঠন, সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ছাড়াও বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ শহীদ মিনারে আসছেন শ্রদ্ধা জানাতে। নারী-শিশুরাও ছিল এই দলে। এসব নারী-পুরুষ ও শিশুদের অনেকেরই পরনে আছে বাংলা বর্ণমালা দিয়ে আঁকা পোশাক।

শেয়ার করুন