লম্বা সময় পেপ গার্দিওলা কোচ থাকলে তবেই সিটিতে যাবেন মেসি

প্রকাশিত

মুক্তমন ডেস্ক: মেসি সিটিতে গেলে গার্দিওলা আরও অন্তত তিন বছর থাকবেন ক্লাবটিতে।

মেসি বার্সা ছাড়লে ঠিকানা হবে ম্যানচেস্টার সিটি। মেসি চায় ফ্রি-ট্রান্সফার তবে, বার্সা বলছে দেরি করে জানানোতে বার্সেলোনার সাথে চুক্তিটা বহাল আছে এল এম টেনের।

এই সমস্যা নিষ্পত্তির আগেই আবার মেসি জানিয়েছেন শুধুমাত্র লম্বা সময় পেপ গার্দিওলা কোচ থাকলেই সিটিতে যাবেন তিনি।

ইন্টারনেট দুনিয়া বা গুগলের সার্চ ইঞ্জিন, সবচেয়ে বেশি নাড়াচাড়া ঐ এল এম টেনকে নিয়েই।

সবার আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দু একটাই, আসলেই কি বার্সা ছাড়ছেন লিও? বার্সেলোনার হাড়ির খবর জানা সাংবাদিক মার্সেলো বেখলার সাফ জানিয়ে দিয়েছেন সিটিই মেসির গন্তব্য।

পত্রপত্রিকা কিংবা সোশ্যাল মিডিয়া। নামী দামী সাংবাদিকদের টুইটার। টার্মস এন্ড কন্ডিশন নিয়ে একেকবার একেক কথা শোনা গেলেও সবাই-ই বলছেন সিটিই ঠিকানা।

তিন পজিশনে খেলতে পারেন এল এম টেন। রাইট উইংগার, স্ট্রাইকার বা ফলস নাইন। ডি ব্রুইনা বা স্টার্লিংদের সাথে মেসিকে কিভাবে কাজে লাগাতে হয় পেপের যে সেটা ভালোই জানা।

সমস্যা অন্য জায়গায়। বার্সেলোনায় ব্যাপক গন্ডগোল। মেসি থাকলে নাকি পদত্যাগে রাজি বার্তেমিউ।

সেক্ষেত্রে দায়িত্ব সামলাবেন ওর সহকারী কার্ডোনের। কেননা, আসছে বছরের নির্বাচন এগিয়ে আনবেন না বার্তেমিউ।

ক্যান্ডিডেট দুইজন। ভিক্টর ফন্ট এগিয়ে, ও প্রেসিডেন্ট হলেই নাকি বার্সার দায়িত্ব নেবেন জাভি। আবার লাপোর্তা ঘোষণা দিয়েছেন তিনি আবার নির্বাচিত হলে নিয়ে আসবেন পেপ গার্দিওলাকে।

গোলটা বাঁধবে তখনই। দেখা গেল পেপের ভরসায় মেসি গেলেন সিটিতে আর পরের বছর পেপ ফিরলেন বার্সেলোনাতে। ম্যানসিটি যাওয়ার আগে এই বিষয়ে তাই নিশ্চয়তা চান মেসি। সিটিজেনরাও জানিয়েছে, মেসি আসলে গার্দিওলা থাকবেন অন্তত তিন বছর।

মুভি-সিনেমা কিংবা জীবনের গল্প। যতই সুন্দর বা ভালো হোক না কেন…সব কিছুরই শেষ থাকে… মেসি আর বার্সেলোনার গল্পটাও সে দিকেই যাচ্ছে।

শেয়ার করুন