রিজার্ভ ছাড়িয়েছে ২৭ বিলিয়ন ডলার

প্রকাশিত

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : বাংলাদেশ ব্যাংকে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ প্রথমবারের মতো ২৭ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান গণমাধ্যমকে এই তথ্য জানান।

আতিউর রহমান বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী রিজার্ভের পরিমাণ ২৭ দশমিক ০৬ বিলিয়ন ডলার। এর আগে চলতি বছরের আগস্টে বৈদেশিক মুদ্রার মজুত ২৬ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়েছিল; সে সময়ে ২৬ দশমিক ০৩ বিলিয়ন ডলার রিজার্ভ ছিল। গত বছর একই সময় রিজার্ভের মোট পরিমান ছিলো ২২ দশমিক ২৭ বিলিয়ন। অর্থাৎ এই সময়ের মধ্যে রিজার্ভের পরিমাণ প্রায় ২১ দশমিক ৫ শতাংশ বেড়েছে।

গভর্নর বলেন, আমাদের রপ্তানির পরিমাণ ও রেমিট্যান্স বাড়ছে বলেই মূলত রিজার্ভ বাড়ছে। সব মিলিয়ে আমরা ভালো অবস্থানের দিকে যাচ্ছি। কিন্তু এই রিজার্ভ মোকাবেলা করাটা আমাদের জন্য একটি বড় চ্যালেঞ্জ।

তিনি বলেন, আগামীতে ভারসাম্যপূর্ণ ও সমতাভিত্তিক উন্নয়নের কৌশল নিয়ে এগিয়ে যেতে এই চ্যালেঞ্জ আমরা সানন্দে গ্রহণ করেছি। এতোদিন আমরা ঘাটতি মোকাবেলা করেছি। এখন উদ্বৃত্ত মোকাবেলা করছি।

আতিউর রহমান বলেন, বৈদেশিক মুদ্রা বাড়ার ফলে কারসাজি কমে যাবে। রিজার্ভ ভালো থাকেল কারসাজি করা সম্ভব হবে না। রেটিং এজেন্সির তথ্যানুযায়ী, এর মাধ্যমে আমাদের অর্থনীতি আরও শক্তিশালী হচ্ছে। দেশে স্থিতিশিল অর্থনৈতিক পরিবেশ বিরাজ করছে। এটি ধরে রাখতে আমাদের সমন্বিত সুপারভিশনের বিকল্প নেই।

বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্রে জানা গেছে, বর্তমান রিজার্ভ দিয়ে দেশের ৮ মাসেরও অধিক সময়ের আমদানি দায় পরিশোধ করা সম্ভব। আন্তর্জাতিক মানদণ্ড অনুযায়ী, একটি দেশে অন্তত তিন মাসের আমদানি ব্যয় মেটানোর মতো বৈদেশিক মুদ্রার মজুত থাকতে হয়।

শেয়ার করুন