মোবাইল ব্যাংকিং : ইসির ডাটাবেজ ব্যবহার করতে চায় ব্যাংকগুলো

প্রকাশিত

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : মোবাইল ব্যাংকিং এ অনিয়ম রোধে এবং হিসাবধারীর তথ্য যাচাই বাছাই করতে ব্যাংকগুলোকে নির্বাচন কমিশনের ডাটাবেজ ব্যবহার করার অনুমতি দেয়া দরকার। একই সঙ্গে ব্যাংক, অর্থ মন্ত্রণালয়, কেন্দ্রীয় ব্যাংক এখাতের অপরাধ দমনে একযোগে কাজ করতে হবে।

রোববার ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই) আয়োজিত ‘মোবাইল ফিনান্সিং সার্ভিসেস’ বিষয়ক গোলটেবিল আলোচনায় বক্তারা একথা বলেন।

চেম্বার অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয় এই এই গোলটেবিল। অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

স্বাগত বক্তব্যে ডিসিসিআই সভাপতি হোসেন খালেদ বলেন, দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বৃদ্ধির ক্ষেত্রে ব্যাংক এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো অতীব জরুরি এবং দেশের অনগ্রসরমান জনগোষ্ঠীকে আর্থিকখাতের সুবিধা প্রদানের ক্ষেত্রে মোবাইল ব্যাংকিং গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে। মোবাইল ব্যাংকিং সেবা কে শুধুমাত্র টাকা পাঠানোর মধ্যে সীমাবদ্ধ না রেখে, এটাকে আরো বৃহৎ পরিসরে ব্যবহারের জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

এম এ মান্নান বলেন, বর্তমান সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের ক্ষেত্রে মোবাইল ব্যাংকিং অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। তিনি এ সেবাকে জনগণের দোরগোরায় পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে এ খাতের ব্যবসায়ী, উদ্যোক্তাদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। তিনি এ খাতের সাথে সংশ্লিষ্ট সকলের মধ্যে সহযোগিতা ও বিশ্বাস বৃদ্ধির উপর গুরুত্বারোপ করেন এবং মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবহার বাড়াতে সরকারের পক্ষ থেকে সকল ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।

নির্ধারিত আলোচনায় বিক্যাশ’র চিফ এক্সটার্নাল অ্যান্ড কর্পোরেট অফিসার মেজর জেনারেল (অব.) শেখ মনিরুল ইসলাম, ডাচ-বাংলা ব্যাংক লিমিটেড’র ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর আবুল কাসেম মো. শিরিন, গ্রামীণফোন লিমিটেড’র ডিরেক্টর ইশতিয়াক হোসাইন চৌধুরী, আইএফআইসি ব্যাংক লিমিটেড’র ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর রায়হান উল আমিন, বাংলালিংক ডিজিটাল কমিনিউনিকেশন্স লি.’র হেড অফ গর্ভানমেন্ট রিলেশন অ্যান্ড রেগুলেটরি স্ট্রাটিজি মাসহিদ রহমান, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ফ্যাকালটি মেম্বার প্রফেসর ড. রোকুনোজ্জামান, বিয়াক’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবং বাংলাদেশ ব্যাংক’র প্রাক্তন ডেপুটি গভর্নর মোহাম্মদ এ রুমি আলী, ডিসিসিআই সমন্বয়কারী পরিচালক খ. আতিক-ই-রাব্বানী, এফসিএ এবং এসএসএল ওয়্যারলেস লিমিটেড’র জেনারেল ম্যানেজার আশীষ চক্রবর্তী অংশগ্রহণ করেন।

আলোচকরা তথ্য যাচাইয়ের জন্য নির্বাচন কমিশনের ডাটাবেইজ ব্যবহারের অনুমতি প্রদান, ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান এবং টেলিযোগাযোগ সংস্থা গুলোর সাথে যথাযথ সমন্বয় সাধন, এ খাতে আরোপিত সার্ভিস চার্জ কমানো, সমন্বিত নীতিমালা প্রণয়ন, প্রযুক্তিগত উৎকর্ষ সাধন এবং আরো বেশি সংখ্যক জনগোষ্ঠীকে এ সেবার আওতায় নিয়ে আসার লক্ষ্যে পদক্ষেপ গ্রহণের প্রস্তাব করেন।

ডিসিসিআই আহ্বায়ক সৈয়দ আলমাস কবীর আলোচনা সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। তিনি বলেন, ২ কোটি ৯০ লক্ষ বৈধ নিবন্ধিত গ্রাহক মোবাইল ব্যাংকিং সুবিধা গ্রহণ করছে।

শেয়ার করুন