ভূমিকম্পে মৃতের সংখ্যা বেড়ে পাকিস্তানে ২৫৩, আফগানিস্তানে ৮২

প্রকাশিত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : দক্ষিণ এশিয়ার তিন দেশে ভূমিকম্পে মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। শক্তিশালী এ ভূমিকম্প সোমবার দুপুরে ভারত, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানে অনুভূত হয়। ৭ দশমিক ৫ মাত্রার ওই ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল ছিল আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলের হিন্দুকুশ পর্বত অঞ্চলে।

ভূমিকম্পের ফলে আফগানিস্তান ও পাকিস্তানে বহু ঘরবাড়ি ও স্কুল বিধ্বস্ত হয়েছে। এ সব ঘরবাড়ির নিচে চাপা পড়ে হতাহত হয়েছে অসংখ্য মানুষ। সর্বশেষ পাকিস্তানে ২৫৩ জন ও আফগানিস্তানে ৮২ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে বলে আলজাজিরা জানিয়েছে।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের ভূ-তাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা বলছে ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল ৭ দশমিক ৭। এর উৎপত্তিস্থল ছিল আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল থেকে ২৫০ কিলোমিটার উত্তর-পূর্বে হিন্দুকুশ অঞ্চলের ২১৩ দশমিক ৫ কিলোমিটার গভীরে। স্থায়িত্ব ছিল প্রায় ৪০ সেকেন্ড।

ভারতের দিল্লি, কাশ্মীর, হরিয়ানা ও পাঞ্জাবেও ভূকম্পন অনুভূত হয়েছে।

পাকিস্তানের পেশোয়ার ও উত্তর পশ্চিম সীমান্ত এলাকার সোয়াত, বাজাউর, কাল্লার কাহার, সারগোদা, কাসুরে অধিকাংশ হতাহতের খবর পাওয়া গেছে। পাকিস্তানী গণমাধ্যম ডন জানিয়েছে, খাইবার পাখতুনখাওয়া ও ফাতায় ১৯১ জন, পাঞ্জাবে ৫ জন, কাশ্মীরে ১ জন ও বেলুচিস্তানে ৩ জন নিহত হয়েছে।

এদিকে আলজাজিরা জানিয়েছে আফগানিস্তানে এ পর্যন্ত ৮২ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এর মধ্যে টাকার প্রদেশে মেয়েদের একটি বিদ্যালয়ে ধসে ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

পাকিস্তানের পেশোয়ার, সোয়াতসহ ভূমিকম্প আঘাত হানা বিভিন্ন এলাকায় হাসপাতালগুলোতে শত শত আহত মানুষ ভর্তি হয়েছে।

ভূমিকম্পের ফলে পাকিস্তানের ইসলামাবাদ ও পেশোয়ারের যোগাযোগ ব্যবস্থায় বিঘ্ন ঘটেছে। ভূমিধসের ফলে কারাকোরাম হাইওয়ের ৫ স্থানে রাস্তা বন্ধ হয়ে পড়েছে।

বড় ভূমিকম্পটির ৪০ মিনিট পর একই এলাকায় আবার ভূমিকম্প অনুভূত হয়। রিখটার স্কেলে এর মাত্রা ছিল ৪ দশমিক ৮।

সূত্র : ডন নিউজ, বিবিসি ও আলজাজিরা

শেয়ার করুন