বাঁধনের ১৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

প্রকাশিত

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি : ‘আঠারোতে বাঁধন, রক্তদানে বাঁচবে প্রাণ’ প্রতিপাদ্য নিয়ে ‘বাঁধন’-এর ১৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়েছে।

ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র মিলনায়তন প্রাঙ্গণে শনিবার বেলুন উড়িয়ে প্রধান অতিথি হিসেবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন। উপাচার্য বাধঁন’র প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে উপদেষ্টা, কর্মী, রক্তদাতা ও শুভানুধ্যায়ীদের শুভেচ্ছা জানান। তিনি বাঁধন’র কর্মীবৃন্দকে তাদের কর্মকান্ডকে আরও গতিশীল করার এবং সকল ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে ছড়িয়ে দেয়ার আহ্বান জানান।

উদ্বোধন শেষে ১৯তম বছরে পদার্পণ উপলক্ষে উপাচার্যের নেতৃত্বে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রায় বাঁধনের কর্মী, উপদেষ্টা, রক্তদাতা ও শুভানুধ্যায়ীগণ অংশগ্রহণ করেন।

উল্লেখ্য, ছাত্র-ছাত্রী দ্বারা পরিচালিত ১৯৯৭ সালের ২৪ অক্টোবর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শহীদুল্লাহ হলে একটি বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় কর্মসূচির মাধ্যমে ‘বাঁধন’ সংগঠনের আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু হয়।

‘একের রক্ত অন্যের জীবন, রক্তই হোক আত্মার বন্ধন’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে স্বেচ্ছায় রক্তদানকে সামাজিক আন্দোলনে পরিণত করার লক্ষ্যে সংগঠনটি দেশের স্নাতক ও স্নাতকোত্তর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহে কাজ করে যাচ্ছে।

বর্তমানে দেশের মোট ৪৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বাঁধনের কার্যক্রম চলমান রয়েছে। যা ৭টি জোনভুক্ত ও স্বতন্ত্র ইউনিটসহ মোট ৯৫টি ইউনিট ও ১২টি পরিবারের মাধ্যমে পরিচালিত হচ্ছে। বাঁধন ২০১৪ সাল পর্যন্ত প্রায় ৫ লাখ ১৭ হাজার ইউনিট রক্ত বিনামূল্যে সরবরাহ করেছে এবং প্রায় ৯ লাখ ৩০ হাজার মানুষকে বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ জানিয়ে দিয়েছে।

শেয়ার করুন