নিজ ক্ষেতে বেড়া দিতে চাওয়ায় স্কুলছাত্রকে গুলি করে হত্যা করলো বিএসএফ

প্রকাশিত

নিউজ ডেস্ক : গবাদি পশু থেকে রক্ষায় নিজেদের পাট ক্ষেতে বেড়া দিতে গিয়ে ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বাহিনী বিএসএফ এর এক সদস্যের গুলিতে প্রাণ গেছে এক বাংলাদেশী স্কুলছাত্র কিশোরের।

ঘটনা পঞ্চগড় সদর উপজেলার শিংরোড প্রধানপাড়া সীমান্তে।

বিএসএফের গুলিতে নিহত ওই স্কুলছাত্র কিশোরের নাম শিমোন চন্দ্র রায় (১৬)।

আজ রোববার বিকেলে শিংরোড প্রধানপাড়া সীমান্তে এই ঘটনা ঘটে। শিমোনের বাড়ি শিংরোড প্রধানপাড়া সীমান্ত ঘেঁষা। সে ওই এলাকার পরেশ চন্দ্র রায়ের ছেলে। সে চাকলাহাট কেপি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এবার এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছে।

জানা যায়, শিমোনকে গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে ও পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

স্থানীয়রা জানায়, শিংরোড প্রধানপাড়া সীমান্ত এলাকার মেইন পিলার ৭৬২ এর সাব পিলার ২ ও ৩ এর মাঝামাঝি সীমান্ত ঘেঁষে বাড়ি শিমোনের। রোববার বিকেলে শিমোন তার বাবার সাথে বাড়ির পাশে নিজেদের পাট খেতে নেট দিয়ে বেড়া দিচ্ছিলেন।

এমন সময় পার্শ্ববর্তী ভারতের বিএসএফ ক্যাম্পের কয়েকজন সদস্য এসে তাদের বেড়া দিতে নিষেধ করে। পরে বিএসএফ সদস্যদের সঙ্গে তাদের কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে শিমোনকে কাছে পেয়ে গুলি করে এক বিএসএফ সদস্য।

গুলিটি তার পেট দিয়ে ঢুকে পিঠ দিয়ে বের হয়ে যায়। পরে তার পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়।

নীলফামারী ৫৬ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে কর্নেল মামুনুল হক ওই স্কুলছাত্রের গুলিবিদ্ধ হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘এ ঘটনায় বিএসএফের কাছে প্রতিবাদ জানিয়ে কারণ জানতে চাওয়া হবে। বিষয়টি আমরা তদন্ত করে দেখছি।’

শেয়ার করুন