নারায়ণগঞ্জে জিসা মনিকাণ্ডে নৌকার মাঝি খলিলের জামিন

প্রকাশিত

মুক্তমন ডেস্ক:নারায়ণগঞ্জে ‘মৃত’ কিশোরী জিসা মনির জীবিত ফিরে আসার ঘটনায় ধর্ষণের পর হত্যার স্বীকারোক্তি দেয়া নৌকার মাঝি খলিলুর রহমানের জামিন মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বুধবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোহাম্মদ আনিসুর রহমান তার জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন। গত ১ সেপ্টেম্বর জামিন আবেদন করেন।

বুধবার শুনানির পর এ আদেশ দেন আদালত। খলিলুর রহমানের আইনজীবী আবদুল লতিফ মিঞা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

অন্যদিকে একই মামলায় ধর্ষণের পর হত্যার মিথ্যা স্বীকারোক্তি দেয়া জিসা মনির কথিত প্রেমিক আবদুল্লাহর জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেছেন আদালত।

আবদুল্লাহর আইনজীবী অ্যাডভোকেট মো. রোকন উদ্দিন জানান, বুধবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোহাম্মদ আনিসুর রহমান আবদুল্লাহর জামিন নামঞ্জুর করেছেন।

একই সঙ্গে আগামী ৭ সেপ্টেম্বর শুনানির তারিখ নির্ধারণ করেছেন।

উল্লেখ্য, গত ৪ জুলাই ১৫ বছর বয়সী কিশোরী জিসা শহরের দেওভোগের মা-বাবার বাসা থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হয়। এ ঘটনায় নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় জিডি ও মামলা করে তার পরিবার।

ওই মামলায় পুলিশ আবদুল্লাহ, রকিব ও নৌকার মাঝি খলিলুর রহমানকে গ্রেফতার করে

। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ৯ আগস্ট তারা আদালতে জবানবন্দিতে ‘অপহরণ, ধর্ষণ ও হত্যা করে লাশ শীতলক্ষ্যা নদীতে ভাসিয়ে দেয়ার’ দায় স্বীকার করেন।

ওই ঘটনার ১৪ দিন পর গত ২৩ আগস্ট ওই কিশোরী জীবিত ফিরে আসে এবং সে জানায় যে ইকবাল নামের এক যুবককে বিয়ে করে বন্দর এলাকায় ভাড়া বাড়িতে সংসার করছিল।

এর পরই পুলিশের রিমান্ড ও তদন্ত নিয়ে মিথ্যাচারের বিষয়টি সামনে আসে, যা নিয়ে দেশব্যাপী তোলপাড় শুরু হয়।

শেয়ার করুন