ধর্মপাশা আ’লীগের দুই নেতার শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন

প্রকাশিত

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি : সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শামীম আহম্মেদ মুরাদ ও তার ঘনিষ্ট বন্ধু মোহনগঞ্জ পৌরসভার বাসিন্দা কেন্দ্রীয় মৎস্যজীবী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রেজুয়ান আলী খান আর্নিকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে সুনামগঞ্জে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। চাকুরী দেওয়ার কথা বলে এক নারীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করার অভিযোগ রয়েছে।

বুধবার দুপুরে ধর্মপাশা উপজেলা পরিষদের সামনে উপজেলা আওয়ামী মহিলালীগ ও যুবমহিলা লীগের যৌথ উদ্যোগে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, ধর্মপাশা উপজেলা নারীনেত্রী আছমা আক্তার, খুকি আক্তার, এলিজা, জান্নাতুল ফেরদৌস, তামান্না আক্তার, রোজিনা, ইউপি সদস্যা পারভীন বেগম ও বীর মুক্তিযোদ্ধা সুলতান মজুমদার প্রমূখ।

বক্তারা বলেন, এই মুরাদ ও আর্নিক তারা দুইজন এক জোট হয়ে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই এলাকার সহজ-সরল মেয়েদেরকে চাকুরী দেওয়ার কথা বলে ঢাকায় নিয়ে যায় এবং সেখানে নিয়ে তাদের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা পয়সা হাতিয়ে নিয়েই তারা ক্লান্ত হয়নি। তারা এই মেয়েকে ধর্ষনের মতো জগন্যতম ঘটনার জন্ম দিয়েছে। তারা এভাবে চাকুরীর প্রলোভন দেখিয়ে অনেক মেয়ের সর্বনাশ করেছে। এই আওয়ামী লীগের দুই নেতা সরকারী দলের নাম ভাঙ্গিয়ে বর্তমানে কোটি কোটি টাকার মালিক বনে গেছেন। তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট জোর দাবী জানান। মানববন্ধনের শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিলর উপজেলা প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে এসে শেষ হয়।

শেয়ার করুন