ড. আদিল খানের শাহাদাতে আল্লামা বাবুনগরীর শোক

প্রকাশিত

পাকিস্তান জামিয়া ফারুকিয়া করাচির প্রতিষ্ঠাতা, বুখারী শরীফের ব্যাখ্যাকার শাইখুল হাদীস আল্লামা সলিমুল্লাহ খান রহ.-এর ছেলে মাওলানা ডক্টর আদিল খান সন্ত্রাসীদের গুলিতে শহিদ হওয়ার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন হাটহাজারী মাদরাসার শায়খুল হাদীস ও শিক্ষা পরিচালক, হেফাজত মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী।

রোববার (১১ অক্টোবর) সংবাদমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে আল্লামা বাবুনগরী বলেন, একজন শীর্ষ আলেমকে এভাবে গুলি করে শহীদ করার দ্বারা বুঝা যায় পাকিস্তানের নিরাপত্তা ব্যবস্থা কতটা দ‚র্বল। কযদিন পরপরই পাকিস্তানে শীর্ষ আলেমদের উপর এমন হামলার ঘটনা ঘটে। যা বড়ই দুঃখজনক। শীর্ষ ওলামায়ে কেরামের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পাকিস্তান সরকারকে আরো কার্যকরী ভূমিকা পালন করতে হবে।

আল্লামা বাবুনগরী বলেন, মাওলানা ডক্টর আদেল খান সাহেব অত্যন্ত বিনয়ী একজন মানুষ ছিলেন। তিনি তাঁর পিতা শায়খুল হাদীস আল্লামা সলিমুল্লাহ খান রহ.-এর সাথে হাটহাজারী মাদরাসায় এসেছিলেন। এ ছাড়াও আমার আব্বাজান মিশকাত শরীফের বিশ্ববিখ্যাত ব্যাখ্যাগ্রন্থ তানজীমুল আশতাত রচয়িতা আল্লামা আবুল হাসান রহ.-এর সাথে শায়খুল হাদীস সলিমুল্লাহ খান সাহেব রহ.-এর গভীর হৃদ্যতা ছিলো। উভয়েই বড় আলেম ও হাদীসের ব্যাখ্যাকার ছিলেন। মাওলানা আদিল খানের শাহাদাতে আমি গভীরভাবে শোকাহত।

মাওলানা আদিল খানের মাগফিরাত কামনা করে আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী বলেন, আল্লাহতা’য়ালা শহীদ মাওলানা ডক্টর আদিল খানকে পরিপূর্ণ ক্ষমা করে দিন এবং তার পরিবার ও শাগরেদদের ধৈর্য ধারণের তাওফিক দান করুন। – খোরশেদ আলম শিমুল, হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা

শেয়ার করুন