জমির ধান কাটতে বাধা

প্রকাশিত

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার নন্দীগ্রামে জমির ধান কাটতে বাধার মুখে পড়েছে কৃষক। ধান নিয়ে বিপাকে পড়েছে কৃষক।

জানা গেছে, উপজেলার ২নং নন্দীগ্রাম ইউনিয়নের কচুগাড়ি মৌজার হাল ৪৬০ দাগের ১২ শতক জমির প্রকৃত মালিক খোর্দ্দ শিমলা গ্রামের আব্দুর রহিমের ছেলে আলম হোসেন। আমন মৌসুমে আলম হোসেন তার ওই জমিতে আমন ধানের চাষাবাদ করে।

ধান পাকার পর গত রবিবার সকাল ৮টায় আলম হোসেন তার লোকজন নিয়ে ওই জমিতে পাকা ধান কাটতে লাগে। সে সময় খোর্দ্দ শিমলা গ্রামের আব্দুল জোব্বারের ছেলে ফেরদৌস আলী তার লোকজন নিয়ে ধান কাটতে জোরপূর্বক বাধা প্রদান করে। তাদের বাধার মুখে ধান কাটা বাকি রেখে জমি থেকে উঠে আসতে হয়েছে। ১২ই নভেম্বর এ বিষয়ে আলম হোসেনের সাথে কথা বললে তিনি বলেছে, ওই জমির বৈধ মালিক আমি। যার কাগজপত্রও রয়েছে। ফেরদৌস আলী অন্যায়ভাবে আমার জমি জবরদখল করার অপচেষ্টায় আমাকে ধান কাটতে বাধা দেয়। তাদের ভয়ে আমি কাটা ধান জমি থেকে বাড়িতে আনতে পারছি না। আমি কোনো দ্ব›দ্ব-কলহ পছন্দ করি না বলেই তাদের সাথে আমি কোনো দ্ব›েদ্ব যাইনি। আমি এর প্রতিকার চাই।

এ বিষয়ে ফেরদৌস আলীর সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

শেয়ার করুন