চীনের হয়ে গুপ্তচরবৃত্তি, সাবেক সিআইএ কর্মকর্তা গ্রেফতার

প্রকাশিত

মুক্তমন ডেস্ক:চীনের হয়ে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার (সিআইএ) সাবেক এক কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এক স্বজনের সঙ্গে যোগসাজশের মাধ্যমে তিনি চীনা গোয়েন্দাদের কাছে মার্কিন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সরবরাহ করার অভিযোগে অভিযুক্ত হয়েছেন। খবর বিবিসির।

বিবিসির প্রতিবেদন অনুযায়ী মার্কিন বিচার মন্ত্রণালয় শুক্রবার ৬৭ বছর বয়সী আলেকজান্ডার ইয়াক চিং মাকে গ্রেফতারের পর এমন অভিযোগ দাখিল করেছে। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি চীনের গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের কাছে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত গোপন তথ্য সরবরাহ করেছেন।
নানা ইস্যুতে ওয়াশিংটন ও বেইজিংয়ের মধ্যে চলমান উত্তেজনার মধ্যে নতুন করে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে আরও একজনকে গ্রেফতার করা হলো। এর আগে গত কয়েক মাসে বেশ কয়েকজন চীনা নাগরিক, গবেষক ও শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে একই অভিযোগ তুলে তাদের গ্রেফতার করলো ট্রাম্প প্রশাসন।

মঙ্গলবার আলেকজান্ডার ইয়াক চিং মাকে আদালতে হাজির করা হবে। যদি তার বিরুদ্ধে তোলা এসব অভিযোগ প্রমাণিত হয়, তাহলে সর্বোচ্চ শাস্তি হিসেবে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডও হতে পারে তার। হংকংয়ে জন্ম নেওয়া ইয়াক চিং যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক। ১৯৮২ সালে তিনি সিআইএ যোগ দেন।

যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি কৌসুলিরা বলছেন, ১৯৮১ সালের যোগ দেওয়ার পর ১৯৮৮ সাল পর্যন্ত তিনি সিআইএর কর্মকর্তা ছিলেন। এরপর অবসর নিয়ে কাজের উদ্দেশে চীনের সাংহাই শহরে যান। ২০০১ সালে তিনি আবার যুক্তরাষ্ট্রে ফিরে আসেন। তখন থেকে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের হাওয়াই অঙ্গরাজ্যে বসবাস করছিলেন।

আলেকজান্ডারের বিরুদ্ধে দাখিল হওয়া অভিযোগপত্রে জানানো হয়েছে, গ্রেফতার আলেকজান্ডার এবং তার আত্মীয় দীর্ঘ এক দশক ধরে চীনের কাছে রাষ্ট্রীয় গোপন তথ্য পাচার করে আসছেন। ২০০১ সালের মার্চে হংকংয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তিদের সঙ্গে বৈঠকের পর তারা তথ্য পাচারের এ কাজ শুরু করেন।

শেয়ার করুন