করপোরেট কর ২৫ শতাংশ করার দাবি এফবিসিসিআইর

প্রকাশিত

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : আগামী তিন বছরে করপোরেট কর কমিয়ে ২৫ শতাংশে নামিয়ে আনার দাবি জানিয়েছে ব্যবসায়ী-শিল্পপতিদের শীর্ষ সংগঠন বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি ফেডারেশন (এফবিসিসিআই)। তাদের বিশ্বাস, করপোরেট কর কমানো হলে তা দেশে বিনিয়োগ ও কর্মসংস্থানে ভূমিকা রাখবে।

এছাড়াও ব্যক্তির করমুক্ত আয়সীমা বাড়ানো, অগ্রিম আয়করের হার কমানো, শিল্পের কাঁচামাল থেকে অগ্রিম কর তুলে নেওয়া, রেয়াতযোগ্য মূল্য সংযোজন করের হার ১০ শতাংশে নামানো এবং আমদানি শুল্ক নিয়ে বেশ কিছু প্রস্তাব দিয়েছে সংগঠনটি।

এফবিসিসিআই নিজস্ব ও সদস্য সংগঠনগুলো থেকে পাওয়া প্রস্তাবের ভিত্তিতে সারসংক্ষেপ করে অর্থ মন্ত্রণালয় ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ডে (এনবিআর) জমা দেওয়া প্রস্তাবে উঠে এসেছে এসব বিষয। আবার গত ১১ মে বাজেট প্রস্তাবের সারসংক্ষেপ তুলে ধরে একটি চিঠিও অর্থমন্ত্রী, শিল্পমন্ত্রী, বাণিজ্যমন্ত্রী, এনবিআরের চেয়ারম্যান ও অর্থ বিভাগের সচিবকে দেওয়া হয় সংগঠনটির পক্ষ থেকে। চিঠিতে করপোরেট কর আগামী তিন বছরে ২৫ শতাংশে নামানোর প্রস্তাব দেওয়া হয়। বিস্তারিত প্রস্তাবে এ বছর করপোরেট কর ৫ শতাংশ কমানোর অনুরোধ করা হয়। অগ্রিম আয়করের বিষয়ে সংগঠনটির প্রস্তাব হলো, এটা ৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৩ শতাংশ করা হোক।

শিল্পের কাঁচামালের ওপর থেকে অগ্রিম কর (এটি) পুরোপুরি তুলে নেওয়ার পক্ষে এফবিসিসিআই। আর অন্যদের ক্ষেত্রে এটি দ্রুত সমন্বয়ের তাগিদ দেয় এই সংগঠন। করোনার মহামারিতে জীবনযাত্রার মানে অবনতির যুক্তি দেখিয়ে এফবিসিসিআই ব্যক্তিশ্রেণির আয়কর দাতার ক্ষেত্রে করমুক্ত আয়সীমা আড়াই লাখ থেকে বাড়িয়ে তিন লাখ টাকা করার প্রস্তাব দিয়েছে। সংগঠনটির মতে, তিন কোটি টাকা পর্যন্ত লেনদেনকারী প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে মূল্য সংযোজন কর (মূসক/ভ্যাট) ৪ থেকে কমিয়ে ২ শতাংশ করা দরকার। করোনার প্রভাব মোকাবিলায় বিলাস পণ্যের ওপর আমদানি শুল্ক বাড়ানো যেতে পারে।

শেয়ার করুন