এবার ইউএনও ওয়াহিদার ২ গাড়িচালক আটক

প্রকাশিত

মুক্তমন ডেস্ক:ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) ওয়াহিদা খানম ও তার বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা ওমর আলী শেখকে হত্যাচেষ্টা মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ইউএনওর দুই গাড়িচালককে আটক করেছে পুলিশ। তারা হলেন- চালক হাফিজ ও ইয়াসিন।

সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলা পরিষদ ক্যাম্পাসের সামনে থেকে তাদের আটক করা হয়।

ঘোড়াঘাট থানার ওসি আমিরুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় রাত সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলা পরিষদ ক্যাম্পাসের সামনে থেকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ইউএনওর দুই গাড়িচালক হাফিজ ও ইয়াসিনকে আটক করা হয়। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

এর আগে গৃহকর্মী জোবাইদা বেগম (৩৮) ও পরিচ্ছন্নকর্মী অরসোলা হেম্ব্রমকে (৩৮) জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করলেও তাদের মধ্যে জবেদাকে ছেড়ে দেয় পুলিশ এবং অরসোলা হেম্ব্রমকে এখনও জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবির পরিদর্শক ইমাম জাফর জানান, তার নেতৃত্বে সাত দিনের রিমান্ডে নেয়া প্রধান আসামি আসাদুল ইসলাম, সহযোগী নবিরুল ও সেন্টুকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।

তিনজনের কাছে পাওয়া তথ্য মিলিয়ে ঘটনার নেপথ্যসহ সব বিষয়ে সঠিক চিত্র বের করার চেষ্টা করছেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত বুধবার দিবাগত রাতে ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সরকারি বাসভবনে ঢুকে দুষ্কৃতকারীরা ইউএনও ওয়াহিদা খানম ও তার বাবা মুক্তিযোদ্ধা ওমর আলী শেখকে নির্মমভাবে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে জখম করে।

বর্তমানে ইউএনও ওয়াহিদা খানম ঢাকার নিউরোসায়েন্সেস হাসপাতালে এবং তার বাবা ওমর আলী শেখ রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে ঘোড়াঘাট থানায় মামলা করেন ইউএনও ওয়াহিদা খানমের বড় ভাই শেখ ফরিদউদ্দীন।

পরে মামলাটি দিনাজপুর ডিবি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয় এবং মামলার তদন্তভার দেয়া হয় ডিবি পুলিশের ওসি ইমাম জাফরকে।

শেয়ার করুন